• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম:
মেসির ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ বাংলাদেশে নৌবাহিনী কলেজ, চট্টগ্রামে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন ধর্মপাশায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করেছে আওয়ামী লীগের একাংশ ধর্মপাশায় জেলা ছাত্রলীগ নেতার করোনা মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিল করেছে উপজেলা ছত্রলীগ ধর্মপাশা উপজেলা সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহমেদ মুরাদের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা ধর্মপাশার মধ্যনগরে ১৫০টি বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণে হায়দার চৌধুরী লিটন নবীনগরে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে স্বপ্নজয়ী সংগঠন এর পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ,, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার জয়শ্রী ইউনিয়নে বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৫ নতুন করে আক্রান্ত ৩০০৯ জন

ধর্মীয় আত্মোপলব্ধি থেকে মিডিয়া ছাড়লেন অ্যানি খান

somoynews71.com / ৫১ সময় দর্শন:
আপডেট: শনিবার, ২০ জুন, ২০২০

মিডিয়াকে বাই বাই জানালেন অভিনেত্রী অ্যানি খান। শিশুশিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করেছিলেন। মিডিয়ায় পা দেওয়ার ঠিক ২৩ বছর পর নিজেকে একদম সরিয়ে নিচ্ছেন ঝলমলে এই দুনিয়া থেকে। ধর্মীয় বিধি মোতাবেক জীবন যাপনের জন্যই এই সিদ্ধান্ত নিলেন অ্যানি খান।

এই মুহূর্তে তাঁর পাঁচটি সিরিয়াল বিভিন্ন টিভিতে প্রচার হচ্ছে। তিনি বললেন, করোনার মধ্যে আমি মোটেও কাজ করতে চাইনা। এমনিতেই সবকিছু থেকে গুটিয়ে আসতে আমার হয়তো একটু সময় লাগবে। তবে মন থেকে চাইছি আল্লাহ যেন আমাকে আর কাজে না ফেরান। ঘরে থাকবো, ইবাদত করবো। উনি চাইলে সবকিছুই সম্ভব।

অ্যানি খান ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, ‘গতবছর থেকেই মনে হচ্ছিল মিডিয়া থেকে দূরে সরে যাবো। জানুয়ারির ২৬ তারিখ থেকে নিজের মধ্যে সিদ্ধান্তটা বেশি করে নাড়া দিতে থাকে। মার্চের ১৯ তারিখ শেষবার শুটিং করেছি। তারপর তো করোনায় সবকিছু বন্ধ হলো। কারও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে মিডিয়া ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেইনি। এ সিদ্ধান্ত আমার একান্তই ব্যক্তিগত। কারণ মৃত্যুর পর আমার হিসেব আমাকেই দিতে হবে। তাই আত্মোপলব্ধি থেকেই আমি মিডিয়ার কাজ থেকে সরে যাচ্ছি।

অ্যানি বললেন, ছোট থেকেই টিভিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করতাম। ২০১৫ সাল পর্যন্ত অভিনয়ে অনিয়মিত ছিলাম। তারপর থেকে এ পর্যন্ত টানা নাটকে কাজ করে মানুষের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। তবে এবার একেবারেই মিডিয়ার কাজ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছি। সার্বক্ষণিক নামাজ ইবাদতে মগ্ন আছি।

এই অভিনেত্রী বলেন, প্রতিনিয়ত অহরহ মৃত্যুর খবরগুলো যেভাবে শুনছি আগে সেভাবে শোনা যেতো না, শুনলেও নাড়া দিত না। বাবাকে হারালাম, চোখের সামনে কাছের মানুষগুলো ছেড়ে চলে যাচ্ছে। এগুলোর কারণে রিয়ালাইজেশনগুলো এসেছে। আমি একজন মুসলিম। মুসলিম হিসেবে ধর্মীয় বিষয়গুলো যতোই জানার চেষ্টা করছি ততই ধর্ম বিষয়ক জ্ঞান বাড়ছে। এতে করে অনেককিছুতে বিধিনিষেধ চলে আসছে।

তিনি বলেন, এই করোনাকালে দেখছি অনেকেই সময় কাটছে না বা হতাশামূলক কথাবার্তা বলে যাচ্ছে। কিন্তু আমি নিজে কোনো সময়ই পাচ্ছিনা। জীবনে সময় এতো স্বল্প অনুভব করছি যে মনে হচ্ছে দিনরাত ৪৮ ঘণ্টা হলে ভালো হতো। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করছি, নফল নামাজ পড়ছি, কোরআন হাদিস পড়ছি। অনেককিছু থেকে পিছিয়ে ছিলাম। সবকিছু আমাকে শিখতে হচ্ছে। এসব জানতে শিখতে কখন যে সময় চলে যাচ্ছে নিজেও বুঝতে পারছিনা।

তিনি বলেন, দু মিনিট পরে আমি বাঁচবো কিনা জানিনা। মৃত্যুর পরে অনন্ত কালের জন্য আমি কি সঞ্চয় করলাম? এ সবকিছু চিন্তাভাবনা মিলিয়ে আমি আর মিডিয়ার কাজে ফিরতে চাইছি না। এজন্য কেউ আমাকে ভণ্ড বলতে পারেন, খারাপ বলতে পারেন। তাতে আমার কিছু যায় আসেনা। আমার রিয়ালাইজেশনগুলো কেমন সেটা একমাত্র আল্লাহই ভালো জানেন।

বিয়ে প্রসঙ্গে বলেন, ঢাকায় আমাদের নিজেদের থাকার একটা জায়গা আছে। বেঁচে থাকলে আগামী বছর বিয়ে করে ফেলবো। একজন সাধারণ মেয়ে বিয়ের পর যেভাবে সংসার নিয়ে সার্ভাইভ করে আমিও তাই করতে চাই। মিডিয়া থেকে সরে গেলে আমার ব্যক্তিগত বিষয়গুলো আর সামনে আনবো না।


এই বিভাগের আরও খবর