• মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম:
মেসির ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ বাংলাদেশে নৌবাহিনী কলেজ, চট্টগ্রামে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন ধর্মপাশায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করেছে আওয়ামী লীগের একাংশ ধর্মপাশায় জেলা ছাত্রলীগ নেতার করোনা মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিল করেছে উপজেলা ছত্রলীগ ধর্মপাশা উপজেলা সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম আহমেদ মুরাদের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা ধর্মপাশার মধ্যনগরে ১৫০টি বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণে হায়দার চৌধুরী লিটন নবীনগরে পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে স্বপ্নজয়ী সংগঠন এর পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ,, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার জয়শ্রী ইউনিয়নে বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৫ নতুন করে আক্রান্ত ৩০০৯ জন

পল্লী ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় হাত হারাল গৃহবধূ

somoynews71.com / ৪৯ সময় দর্শন:
আপডেট: রবিবার, ২১ জুন, ২০২০

নরসিংদীর শিবপুরে মোস্তফা কামাল নামের এক পল্লী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার কারণে হ্যাপী আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূর জীবন বাঁচাতে হাত কেটে ফেলতে হয়েছে। হ্যাপী আক্তার শিবপুর উপজেলার বৈলাব গ্রামের আলম মিয়ার স্ত্রী।

ওই চিকিৎসক শিবপুর বাজারের তানিয়া মেডিকেল হল নামের একটি দোকানের মালিক। হ্যাপীর স্বামী আলম মিয়া জানান, গত ১২ জুন শুক্রবার আমার বাড়ির আঙ্গিনায় কাদামাটিতে পিচ্ছিল খেয়ে পড়ে হাতে ভেঙে যায় হ্যাপীর।
পরে চিকিৎসা দেয়ার জন্য নরসিংদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে হাড়ভাঙা ডাক্তারের সাথে আলোচনা করে সবকিছু ঠিক করা হয়। এসময় শিবপুর থেকে পল্লীচিকিৎসক মোস্তফার পরিচিত এক লোক আমাকে ফোন করে বলেন শিবপুরে অভিজ্ঞ হাড়ভাঙার ডাক্তার দ্বারা কম খরচে উন্নত মানের চিকিৎসা দেয়া সম্ভব। আপনার স্ত্রীকে নিয়ে চলে আসেন শিবপুরে।

রোগী নিয়ে গেলে পল্লী চিকিৎসক মোস্তফা নিজে হ্যাপীর চিকিৎসা করেন। চিকিৎসার দুইদিন পরে অবস্থার উন্নতি না হয়ে অবনতি হলে হ্যাপীকে অন্য ডাক্তারের কাছে পাঠায় ওই পল্লী চিকিৎসক। পরে জানতে পারলাম আমার স্ত্রীর হাতে পচন ধরেছে। এ অবস্থায় হ্যাপীকে নরসিংদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে চিকিৎসা শুরু করি।
তার জীবন বাঁচাতে অবশেষ বাম হাতের কনুই এর উপর থেকে কেটে ফেলা হয়েছে। বর্তমানে আমার স্ত্রী নরসিংদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পল্লী চিকিৎসক মোস্তফার কামালের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, হ্যাপীর চিকিৎসা আমি করিনি, করেছে একজন অভিজ্ঞ ডাক্তার। তবে ওই ডাক্তারের নাম ঠিকানা জানতে চাইলে তা জানাতে পারেননি তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নাকের পলিপাসের চিকিৎসার অপারেশন পল্লী চিকিৎসক মোস্তফা নিজে ওষুধের দোকানের ভিতরে করে থাকেন।


এই বিভাগের আরও খবর